বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ০৭:৫৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
চলে গেলেন নবনীতা দেবসেন রোহিঙ্গা সমস্যা সৃষ্টিতে জিয়াউর রহমানের হাত রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আগুন শেখ নাজমুলের কাঁধে ডিআইজি র‍্যাংক ব্যাজ পরালেন আইজিপি মেসে নিয়ে কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ বিয়ের জন্য জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় অনুপস্থিত ছাত্রীরা ‘বর্তমান সরকারের আমলে দেশে দৃশ্যমান উন্নয়ন হয়েছে’ পাসপোর্টের জন্য করিমকে স্বামী আব্দুলকে বাবা বললেন রোহিঙ্গা তরুণী শতকোটি টাকার মিল দখল, আ.লীগ নেতাকে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ মাধবদীতে ট্রাকচাপায় টেক্সটাইল মিলের কর্মকর্তা নিহত শিশু উন্নয়ন কেন্দ্র থেকে মুক্তি পেল ১২১ শিশু ছাত্রদের পায়ে শিকল, বহিষ্কার হলেন সেই মাদরাসা সুপার আহসান উল্লাহ মাস্টারের জন্মদিন ৯ নভেম্বর বিয়ের ১০ দিনের মাথায় গলায় ফাঁস দিলেন নববধূ শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে এসে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ এসিআইয়ের ভুল আর্থিক তথ্য প্রকাশ, ডিএসইর তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি জামায়াতের নতুন আমির ডা. শফিকুর রহমান ক্ষোভে বিএনপি ত্যাগ করলেন মোর্শেদ খান শ্রমিক লীগের সভাপতি মন্টু, সম্পাদক খসরু বাংলাদেশ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় রোল মডেল: রেডক্রস প্রধান
বাঙালির বিশ্বজয়, অমর্ত্য সেনের পর ফের অর্থনীতিতে নোবেল অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের

বাঙালির বিশ্বজয়, অমর্ত্য সেনের পর ফের অর্থনীতিতে নোবেল অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবদেক

অর্মত্য সেনের পর এবার অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন ফের এক বাঙালি। আমেরিকায় বসবাসকারী ওই প্রবাসী বাঙালির নাম অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার তাঁর নাম ঘোষণা করা হয় নোবেল কমিটির তরফে। তবে ২০১৯ সালের অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার মোট তিনজনকে দেওয়া হচ্ছে। অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও যৌথভাবে এই পুরস্কার পাচ্ছেন তাঁর স্ত্রী এসথার ডাফলো ও মাইকেল ক্রেমার।

বিশ্বব্যাপী দারিদ্র দূরীকরণের জন্য বিরল গবেষণা করার পুরস্কার পাচ্ছেন ওই তিন অর্থনীতিবিদ। ১৯৯৮ সালে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন বাঙালি অর্থনীতিবিদ অর্মত্য সেন। তার ঠিক ২১ বছর বাদে নোবেল পুরস্কার পেলেন তাঁর অন্যতম প্রিয় ছাত্র অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোমবার এপ্রসঙ্গে রয়্যাল নোবেল কমিটির তরফে জানানো হয়, গত দু’দশক ধরে দারিদ্র দূরীকরণের জন্য নিরলস গবেষণা করছেন ওই তিনজন। তাদের নতুন পরীক্ষা-ভিত্তিক পদ্ধতির জন্য অনেক পরিবর্তন এসেছে উন্নয়নের অর্থনীতিতে। এর মাধ্যমে গবেষণার নতুন নতুন দিক খুলে গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত সারা বিশ্বের ৭০ কোটি মানুষ অতি দারিদ্রসীমার নিচে বসবাস করছেন। প্রতিবছর ৫০ লক্ষের বেশি শিশু তাদের পাঁচ বছরের জন্মদিনের আগেই প্রাণ হারাচ্ছে। এই অবস্থায় তিনজন অর্থনীতিবিদের গবেষণা তাদের জীবনের মানোন্নয়নে সহায়ক হবে। সেই কারণে তাঁদের নাম নোবেল পুরস্কারের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে।

এই খবর পাওয়ার পরেই টুইট করে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি লেখেন, ‘কলকাতার সাউথ পয়েন্ট স্কুল ও প্রেসিডেন্সি কলেজের প্রাক্তন ছাত্র অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পাওয়ার জন্য আন্তরিক অভিনন্দন জানাই। আরেকজন বাঙালি দেশ সম্মানিত করলেন। আমরা অত্যন্ত আনন্দিত।’

অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় ও এসথার ডাফলো

১৯৬১ সালে কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। বাবা দীপক বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন প্রেসিডেন্সি কলেজের অর্থনীতি বিভাগের প্রধান। আর মা নির্মলাদেবী ছিলেন সেন্টার ফর স্টাডিজ ইন সোশ্যাল সায়েন্সেস, কলকাতার অর্থনীতি বিভাগের একজন অধ্যাপক। বাবা ও মা দু’জনেই অর্থনীতির মানুষ হওয়ায় ছোটবেলা থেকেই এই বিষয়ের প্রতি আকর্ষণ ছিল অভিজিৎবাবুর। তাই সাউথ পয়েন্ট স্কুলের পালা সাঙ্গ করে প্রেসিডেন্সি কলেজে অর্থনীতি নিয়ে ভরতি হন। সেখান থেকে ১৯৮১ সালে অর্থনীতিতে বি.এস ডিগ্রি অর্জন করেন। পরে ১৯৮৩ সালে দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে এম.এ পাশ করেন। ১৯৮৮ সালে পিইচডি করার জন্য ভরতি হন ইংল্যান্ডের হার্ভাড বিশ্ববিদ্যালয়ে। বর্তমানে তিনি আমেরিকার বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান এমআইটির ফুড ফাউন্ডেশনের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত।


নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com